এবার ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে জয় পেয়েছেন ১ নং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের শম্পা খাতুন পপি।

তিনি হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ১০১ ভোট পেয়েছেন। গতকাল বুধবার ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে ফুলহরি ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী অপর দুই জনকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছেন তিনি।

জানা যায়, মাগুরার শালিখা উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের রুহুল আমিন খন্দকারের ৪র্থ সন্তান শম্পা খাতুন পপি। ঝিনাইদহের শৈলকুপা

উপজেলার ফুলহরি গ্রামের আব্দুল আমিন রাসেলের সাথে ২০১৩ সালে বিয়ে হয় তার। প্রথম দিকে রাসেলের পরিবারের পক্ষ থেকে তার সাথে ভালো আচরণ করলেও কিছুদিন পর শুরু হয় মা;রধ;র ও নি;র্যা;তন।

এরপর গত বছর তাকে তালাক দেয় রাসেল। তবুও ফুলহরি থেকে মানুষের সেবা করে আসছিলেন তিনি।

তফসিল ঘোষণা করার পর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাধারণ মানুষের কাছে ভোট চাওয়া শুরু করেন তিনি।

এদিকে নির্বাচনে জয়ী হয়ে শম্পা খাতুন পপি জানান, আমি এলাকায় দেখেছি জনপ্রতিনিধিরা মানুষকে কত হয়;রানি করে। বিভিন্ন ভাতা দেওয়ার জন্য অসহায় মানুষের কাছ থেকে টাকা নেয় তারা। তাদের হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করতে আমি ভোটযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম।

তিনি আরও বলেন, মানুষের উপকার করি বলেই তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। ভোটাররা আমাকে নির্বাচিত করেছেন আমি তাদের সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। সরকার যদি আমাদের দিকে একটু নজর দেয় তবে আমরা মানুষকে ভালোভাবে সেবা করতে পারব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.