আধুনিক মালয়শিয়ার জনক প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ডা. মাহাথির মোহাম্মদ যিনি ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটে (আইজেএন) চিকিৎসা নিচ্ছেন। অনেক বাংলাদেশী সোস্যাল মিডিয়ায় তার মৃ;ত্যুর গুজব ছড়াচ্ছেন । দয়া করে কেউ উনার মৃ;ত্যু নিয় গুজব ছড়াবেন না ।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদকে ফের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রীর একজন মুখপাত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মাহাথির মোহাম্মদকে ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটের কার্ডিয়াক কেয়ার ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। তবে দেশটির সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী কী ধরনের অসুস্থতায় ভুগছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত কোনও তথ্য দেননি তিনি।

এ নিয়ে দেশটির বর্তমান সংসদ সদস্য এবং ৯৬ বছর বয়সী সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে চলতি মাসে দ্বিতীয়বারের মতো হাসপাতালে ভর্তি করা হলো। গত ৯ জানুয়ারি মাহাথির মোহাম্মদকে ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

সেখানে একটি সফল অস্ত্রোপচারের পর গত সপ্তাহে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরেন তিনি। ওই সময় এক বিবৃতিতে জানানো হয়, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর শরীরে ‘ইলেক্টিভ মেডিক্যাল প্রসিডিউর’ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

দেশটির ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউট বলেছে, অপ্রত্যাশিত কোনও ঘটনা ছাড়াই অস্ত্রোপচারটি সফল হয়। মাহাথির মোহাম্মদের হার্টের পুরোনো সমস্যা রয়েছে। গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর হার্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। সেই সময় এক সপ্তাহ হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর ছাড়া পান তিনি।

২০০৩ সাল পর্যন্ত ২২ বছর মাহাথির মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

৯২ বছর বয়সে ২০১৮ সালে বিরোধী জোটকে পরাজিত করে তিনি ফের দেশটির প্রধানমন্ত্রী হন।

কিন্তু দুই বছরেরও কম সময়ে তার সরকার ভেঙে যায়। মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে তিনি প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.