ভারতের ঝাড়খণ্ডের লোহারদাগায় এক তরুণ তার দুই বান্ধবীকে একই সঙ্গে, একই দিনে বিয়ে করেছেন। তবে কাউকে ঠকিয়ে নয়, এই বিয়েতে দুই কনেরই সন্মতি ছিল।

জানা গেছে, কুসুম লাকড়া ও স্বাতী কুমারী নামের দুই নারী সন্দীপ ওরাওকে ভালবাসতেন। লোহারদাগার ভান্দ্রা ব্লকের বান্দা গ্রামে একই দিনে একই মণ্ডপে প্রেমিকের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন তারা।

সন্দীপ ও কুসুম তিন বছর ধরে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন। তাদের একটি সন্তানও রয়েছে। তবে এক বছর আগে সন্দীপ পশ্চিমবঙ্গের একটি ইটভাটায় কাজ করতে যান, তখন তাদের প্রেমের গল্প নতুন মোড় নেয়।

সেই সময়েই সন্দীপের সঙ্গে দেখা হয় স্বাতী কুমারীর সঙ্গে। স্বাতীও সেই ইটভাটাতেই কাজ করতেন। সন্দীপ গ্রামের বাড়িতে ফেরার পরেও দু’জনের দেখা-সাক্ষাৎ অব্যাহত ছিল। শেষে তাদের পরিবারের সদস্য ও গ্রামবাসীরা তাদের সম্পর্কের কথা জানতে পেরে প্রবল বিরোধিতা শুরু করেন।

দীর্ঘ ঝগড়া, বিবাদ ও অশান্তির পর গ্রামবাসীরা পঞ্চায়েত ডাকে। পঞ্চায়েত সিদ্ধান্ত নেয় যে সন্দীপকে উভয় নারীকেই বিয়ে করতে হবে। আশ্চর্যের বিষয় হলো ওই দুই নারী বা তাদের পরিবারের কেউই এই বিয়ে নিয়ে কোনো আপত্তি করেননি।

সংবাদমাধ্যমকে সন্দীপ বলেন, আমি জানি এই বিয়ে নিয়ে আমাকে আইনি জটিলতায় পড়তে হবে। তবে আমি এদের দু’জনকেই ভালবাসি, এদের কাউকে ছাড়া থাকাই আমার পক্ষে সম্ভব নয়।

সূত্র: জিও নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published.