রাজবাড়ীতে আরও ৬৪৬টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পেয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘর। আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর সেই ঘরে বসবাস করতে পেরে দারুণ খুশি হয়েছেন ফুলজান বিবিসহ ভুক্তভোগীরা। তারা বলেন- আমাদের মা শেখ হাসিনা। মায়ের জন্য নামাজ পড়ে দোয়া করি।

সদর উপজেলার ৪৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমির দলিল, ঘরের চাবি, হস্তান্তর করায় তারা সবাই এখন নিজ ঘরে বসবাস করতে পারছেন। এখন প্রতিদিনই নিজ ঘরে দিনরাত থাকতে পারবেন। শুধু ঘরই নয় থাকছে নিজ নামে দুই শতাংশ জমি, স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট, বারান্দাসহ বসবাসের জন্য নিরাপদ সুবিধা।

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসস্তপুর ইউনিয়নে ৩০টি, আলীপুর ইউনিয়নে ১২টি ও মূলঘর ইউনিয়নে ৩টি ঘর রয়েছে।সরেজমিন সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গিয়ে ঘুরে ঘুরে ঘর পাওয়া সুবিধাভোগীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়।

সুবিধাভোগীরা জানান, আমাদের মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার কারণেই আজকে আমরা নতুন ঘরগুলো পেয়েছি। মায়ের কথা আমরা কোনো দিন ভুলতে পারবা না। ঘরগুলো পেয়ে আমরা অনেক সুখে শান্তিতে ঘরে বসবাস করতে পারছি।

সদর উপজেলার মূলঘর ইউনিয়নের ঘর পাওয়া সুবিধাভোগী ফুলজান বিবি বলেন, মা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর পেয়ে বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে শান্তিতে বসবাস করছি। আমাদের এখন আর কোনো কষ্ট নাই।

মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আমরা সব সময় দোয়া করি। আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ রাখেন, আরও সুন্দরভাবে তিনি মানুষের সেবা করে দেশ চালাতে পারেন।

আরেক সুবিধাভোগী রুপা বেগম বলেন, স্বামী গরিব কৃষক ছিল। পরের জমিতে চাষবাস করে কোনোরকম খেয়ে না খেয়ে বাচ্চা কাচ্চা নিয়ে দিন কাটছিল।

আমাদের নিজেদের একটুও জায়গা ও জমি পর্যন্ত ছিল না। স্বামী-স্ত্রী দুইজন মিলে টাকা দিয়ে মানুষের বাড়িতে ভাড়াবাসায় থাকতাম। আল্লাহর অশেষ দয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আমাকে একটা ইটের ঘর দিয়েছেন।

এখন সুন্দর ঘরে স্বামী ও ছেলে মেয়ে নিয়ে সুখে আছি। শেখ মুজিবের বেটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের মা। শেখ হাসিনা মায়ের জন্য নামাজ পড়ে সব সময় দোয়া করি।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মার্জিয়া সুলতানা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুযায়ী সদর উপজেলায় তৃতীয় পর্যায়ের ১ম ধাপে ৭৫টি ও তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপে আরও ৪৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য টেকসই পরিপূর্ণ ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে।

ঘরে উপকারভোগীরা সুখে শান্তিতে বসবাস করতে পারছেন এবং তারা প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করছেন বলে জানান।

রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের মাঝে ঘর হস্তান্তর করেছেন। এজন্য রাজবাড়ীবাসীর পক্ষ থেকে তাকে অভিনন্দন জানাই।

জেলার ঘর পাওয়া সুবিধাভোগীরা ঘর পেয়ে খুবই আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর পাওয়ায় ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের জীবনযাত্রার মান আরও উন্নত হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুলাই জেলায় ৬৪৬টি ঘর পেয়েছেন উপকারভোগীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.