মালয়েশিয়ার ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ ওস্তাদ ইবিট লিও এখন ঢাকায়

মালয়েশিয়ার ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ ওস্তাদ ইবিট লিও এখন ঢাকায়

বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্ব শুরু হবে ২০ জানুয়ারি শুক্রবার। টঙ্গীর তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিতব্য ইজতেমা আগামী রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হবে।

এই ইজতেমাকে সামনে রেখে ধ;র্ম;প্রা’ণ মু’সল্লিদের ঢল এখন টঙ্গীমুখী। পুরো ময়দান এখন টু’পি-পাঞ্জাবি পরা মানুষে ভরপুর। মু’সল্লিদের স্রোত টঙ্গী অভিমুখে বেড়েই চলছে। এ স্রোত থাকবে আখেরি মো’নাজাতের আগ পর্যন্ত।

এদিকে বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্বে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছেন মালয়েশিয়ার সাধারণ মানুষের কাছে ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’খ্যাত আলোচিত দাঈ ও সমাজকর্মী ওস্তাদ ইবিট লিও।

বুধবার রাতে ঢাকার হযরত শাহজালাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে পৌঁছান তিনি। সেখান থেকে সরাসরি টঙ্গী ইজতেমার ময়দানে নিয়ে আসা হয় তাকে।

বাংলাদেশে এসে বৃহস্পতিবার সকালে খোলা রিক্সায় ঘুরে বেড়ানোর একটি ছবি পোস্ট করেন ইবিট লিও। সেখানে তিনি
লিখেন-‘Alhamdulillah. I Love ❤️ Bangladesh. আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি’।

আলোচিত দাঈ ইবিট লিও একজন মালয়েশিয়ান চাইনিজ মু’সলিম। তিনি মালয়েশিয়ার মুসলিম উদ্যোক্তা এবং ধ;র্ম প্রচারক হিসেবে সব মহলে ইবিট লিও নামে পরিচিত। তার পুরো নাম-ইবিট ইরাওয়ান বিন ইব্রাহিম লিও।

১৯৮৪ সালের ২১ ডিসেম্বর মালয়েশিয়ার পাহাং রাজ্যে তিনি জন্মগ্রহণ করেছেন। তার পিতার নাম মুয়াডজম শাহে লিউ ইউ পাউ। ১১ জন ভাই-বোনের মধ্যে তিনি তৃতীয়। দ্বী’ন’কে অনুসরণ করে ১২ বছর বয়সে তিনি ই;স লা ম গ্র’ হ” ণ করেছিলেন।

সুদর্শন সু’ন্ন’তি দাঁ’ড়ি, ক্যাপ এবং কুর্তায় জনপ্রিয় এই ওস্তাদ ইবিট লিও তার পারিবারিক অনুপ্রেরণায় মানব কল্যাণ ও ই’সলামি দাওয়াতের কাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।

‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য’ বিখ্যাত এই উক্তিটি যেন মিলে যায় ওস্তাদ ইবিট লিও’র সঙ্গে। একজন সমাজসেবক ও ধ;র্ম প্রচারক সৎ, ন্যায়-নীতিবান, উদার সমাজ সংস্কারক মালয়েশিয়ায় সর্বপরিচিত। দেশটির সুশীল সমাজ, তরুণ-নবীন, যুব-প্রবীণ সমাজে তার যথেষ্ট সুনাম রয়েছে।

ইবিট লিও ২০১৫ সালে ‘মওলিদুর রসুল’ জাতীয় পুরস্কার এবং ২০২০ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় যুব দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে সমাজ বিনির্মাণে এবং মহামারি করোনার সময়ে মানব কল্যাণে বিশেষ অবদান রাখায় জাতীয় যুব দিবসের বিশেষ সম্মানে ভূষিত করেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী তানশ্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

এছাড়াও মানব কল্যাণে অবদান রাখায় সরকার কর্তৃক বিভিন্ন সময় তিনি একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন।

ইবিট লিও দাতু ডা. হাজী মোহাম্মদ ফাদজিল্লাহ কামসাহ এবং অধ্যাপক হানিম তাহিরের পরিচালনায় এক্সেল প্রশিক্ষণের মোটিভেশনাল স্পিকার। তিনি সকলের প্রেরণাদানকারী, ই’সলাম আগামা, ইসলাম ইতু ইন্দাহ, উসরাহ নূরানী, এবং আইকেআইএম এবং সিনার রেডিওর নিয়মিত বক্তা।

বিশ্ব সংবাদ