সুকেশের অর্থে মরোক্কোতে বাড়ি, ফেঁ;সে যাচ্ছেন অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি!

সুকেশের অর্থে মরোক্কোতে বাড়ি, ফেঁ;সে যাচ্ছেন অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি!

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নোরা ফতেহিকে নিয়ে একের পর এক তথ্য প্রকাশ করছেন সুকেশ চন্দ্রশেখর। জানালেন, সুকেশের টাকায় মরোক্কোতে বাড়ি ক্রয় করেছেন। এর ফলে ফেঁ;সে যাচ্ছেন অভেনিত্রী নোরা ফাতেহি। কয়েক দিন আগেই সুকেশ বলেন, নোরা ফতেহি সব সময় জ্যাকুলিন ফার্নান্ডেজ়কে ঈ;র্ষা করতেন।

এবার সুকেশের দাবি, তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিতেন নোরা। সেই টাকায় নিজের পরিবাররে জন্য মরোক্কোতে বাড়িও কেনেন নোরা। যদিও নোরার গ’লা’য় অবশ্য অন্য সুর। ২১৫ কোটি আর্থিক তছরূপের মা;ম’লা’য় অ’ভিযুক্ত সুকেশই নাকি নোরাকে কথা দিয়েছিলেন বিলাসবহুল জীবনযাপনের। শর্ত, সুকেশের প্রেমিকা হয়ে থাকতে হবে নোরাকে।

সম্প্রতি দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে কনম্যান সুকেশ চন্দ্রশেখরের বিরুদ্ধে সরব হন ‘দিলবর’ খ্যাত বলিউড অভিনেত্রী নোরা ফতেহি। নিজের গোপন জবানবন্দিতে অভিনেত্রী জানান, ‘‘বান্ধবী হওয়ার পরিবর্তে বিলাসবহুল গাড়ি-বাড়ির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল সুকেশ।’’

আদালতে জবানবন্দিতে নোরার দাবি, পিঙ্কি ইরানির মাধ্যমে তার যোগাযোগ হয় সুকেশের সঙ্গে। তিনি চিনতেন না সুকেশকে, তার সঙ্গে কখনও সামনাসামনি আলাপ বা ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল না তার। সুকেশের পাল্টা দাবি, এখন নোরা গল্প বুনছেন। এ সব অভিযোগ ভিত্তিহীন। আইন ও ইডির হাত থেকেই বাঁচতেই এত কিছু বলছেন ‘দিলবর গার্ল’।

প্রশ্ন ওঠে নোরার সাদা বিএমডব্লিুউ গাড়ি নিয়ে। মাঝে যে গাড়িতে দেখা যাচ্ছিল তাকে। সেই গাড়ি সুকেশ কিনে দিয়েছেন বলেই জানান। নোরা অবশ্য এই দাবিকে নসাৎ করেছেন। তার প্রেক্ষিতেই ইডিকে সুকেশ তাদের কথোপকথেনর স্ক্রিনশট দেখান।

পাশপাশি বলেন, ‘‘নোরা ও আমি দুইজনে মিলে গাড়িটা পছন্দ করি। পুরানো গাড়িটা পছন্দ ছিল না ওঁর। তাই কিনে দিই। আমি যদিও রেঞ্জ রোভার দিতে চেয়েছিলাম নোরাকে। সেটা না থাকায় তখন বিএমডব্লিউ কেনা হয়।’’ সুকেশ জানান, জ্যাকলিনের বি’রু’দ্ধে নোরা প্রতিনিয়ত ‘ম’গজধোলাই’ করতেন। নোরা চাইতেন, জ্যাকলিনকে ছেড়ে সুকেশ যেন তার সঙ্গে থাকেন।

Newsupdates