বিগত সময়ে প্রেম-বিয়ে ও সন্তান বিতর্কে বেশ আলোচনায় রয়েছেন টলিউড অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। এ অভিনেতা আগেও একটি বিয়ে করেছিলেন।

এবার যশের সেই প্রাক্তন স্ত্রী কথা বলেছেন ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে। যশের প্রাক্তন স্ত্রীর নাম শ্বেতা। মুম্বাইয়ে বসবাস করেন তিনি। সেখানে একটি সংবাদমাধ‌্যমে কাজ করেন। অনেকেই জানেন না যশ শ্বেতাকে বিয়ে করেছিলেন। সেই সংশয় দূর করতেই বিয়ের কথা জানালেন শ্বেতা।

আনন্দবাজারকে দেওয়া সাক্ষা]কারে শ্বেতা বলেন—‘মুম্বাইয়ে যশের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছিল। আমাদের ১০ বছরের একটি ছেলেও আছে। কখনো সামনে আসিনি তাই মানুষ আমাকে চেনেন না।

এতদিন বিষয়টি কেউ জানতো না, এবার জানবে।’ শ্বেতা টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে তিন বছর কাজ করেছেন। তখন যশের সঙ্গে ডিভোর্স নিয়ে লড়ছিলেন তিনি। এরপর মুম্বাইয়ে ফিরে যান শ্বেতা। এতদিন সামনে না আসার কারণ ব‌্যাখ‌্যা করে শ্বেতা বলেন—‘যশের সঙ্গে আমার তো বিচ্ছেদ হয়েই গেছে। সামনে এসে কী করব!’

টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের সঙ্গে প্রেম-বিয়ে নিয়ে দারুণ সমালোচিত যশ। নুসরাতকে ব‌্যক্তিগতভাবে চেনেন কিনা? এমন প্রশ্নের উত্তরে শ্বেতা বলেন— ‘আমি নুসরাতকে দেখেছি, কিন্তু চিনি না।

তাই এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না।’ শ্বেতা ও যশ কারো সঙ্গেই থাকে না তাদের পুত্র। যশের সঙ্গে যোগাযোগ আছে কিনা বা ভালোবাসেন কিনা? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যশ আমার ছেলের বাবা।

ওর সঙ্গে সেই সূত্র ধরে যেটুকু যোগাযোগ রাখতে হয় রাখি। আমাদের সন্তান পারস্পরিক হেফাজতের অধীনে। ডিভোর্সের সময় আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

আর ভালবাসা? যশ যে দিন আমাদের পরিবার ছেড়ে চলে গিয়েছিল, সে দিন থেকেই ওর জন্য আমার ভালবাসা উধাও হয়ে গিয়েছে।

‘স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে গ্রেপ্তার যশ দাশগুপ্ত’—২০১৪ সালের ২৬ জুন এই শিরোনামে খবর প্রকাশ করেছিল টাইমস অব ইন্ডিয়া। চলতি বছরের শুরুতে এ প্রতিবেদনটি সামনে নিয়ে আসেন নেটিজেনরা।

সংবাদমাধ্যমটিকে একটি সূত্র বলেছিলেন—‘যশের বিরুদ্ধে আইপিসির ৪৯৮ এ ধারায় স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যশ ও তার স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে আলাদা থাকছেন। তবে যশের সন্তান তার দাদা-দাদির সঙ্গে থাকতো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *