বিশ্বকাপ মিশন শেষে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। আজ ২৮ জুন (শুক্রবার) সকাল ৯ টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পা রাখেন ক্রিকেটাররা। অ্যান্টিগা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামি ও দুবাই হয়ে ঢাকায় এসেছেন তারা।

বিমানবন্দরে নেমে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন বাংলাদেশের সহ-অধিনায়ক পেসার তাসকিন আহমেদ।

সেখানে তিনি বলেছেন, ‘আমরা তো মাইনাসেই আছি। প্লাস করতে হবে। প্রথমবার আমরা সুপার এইট খেললাম, পজিটিভ দিক আছে, আবার নেগেটিভ দিকও আছে। নেতিবাচক দিকটাই বেশি। প্রত্যাশা না মেটানোতে সবাই হতাশ। প্রত্যাশা অনুযায়ী আমরা ফল পাইনি। তাই আমরাও সবমিলিয়ে হতাশ।’

টুর্নামেন্টে বোলাররা ছিলেন দুর্দান্ত, তবে ভুগিয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। কেন এমন হচ্ছে জানতে চাইলে তাসকিন বলেন, ‘আমার ১০ বছরের ক্যারিয়ারে আমিও কখনো এত লম্বা সময় ব্যাটিংয়ে ব্যর্থতা দেখিনি। আশা করি খুব দ্রুতই কাটিয়ে উঠব।’

আপাতত সপ্তাহ দুয়েকের ছুটি পাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। ছুটি শেষে চলমান টাইগার্স ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার কথা তাদের। চট্টগ্রামে চলছে টাইগার্স দলের অনুশীলন। সেখানে বিসিবির কোচ সোহেল ইসলামের অধীনে অনুশীলন করবেন ক্রিকেটাররা। জাতীয় দলের কোচরা না আসা পর্যন্ত সেখানেই আসন্ন ব্যস্ত টেস্ট সূচির প্রস্তুতি নেবেন খেলোয়াড়েরা।

এ ছাড়া অনেকেই আগামী এক-দেড় মাস ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে ব্যস্ত থাকবেন। সাকিব আল হাসান খেলবেন যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগে, কানাডার গ্লোবাল টি-টোয়েন্টিতে খেলবেন শরিফুল ইসলাম, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও রিশাদ হোসেন। মোস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ খেলবেন এলপিএলে।

আরাও পড়ুন... সেরা উক্তি