খোলা মাঠে কর্দমাক্ত জমিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে এক বাঘ। চারদিকে উৎসুক জনতার ভিড়। কখনো বাঘটি গর্জন করছে। সম্প্রতি এমন একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কেউ কেউ দাবি করছেন, এই ঘটনা বাংলাদেশের নওগাঁ জেলার একটি গ্রামের। এমন দাবি করে ‘এনকে পোস্ট’ নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে বাঘের ঘুরে বেড়ানোর একটি ভিডিও আপলোড করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার ‘নওগাঁতে বনের বাঘ গ্রামে ফলে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে গ্রামের মানুষ’ এই ক্যাপশনে ভিডিওটি ওই পেজে আপলোড করা হয়। ওই পোস্টে অনেকে মন্তব্য করেছেন। কেউ বলছেন জয়পুরহাটে এই ঘটনা আবার কেউ মন্তব্য করেছেন এটা সাতক্ষীরার ঘটনা।

এছাড়া ফেসবুকের আরে পেজে এই ঘটনাটি চট্টগ্রামের দক্ষিণে আনোয়ারায় একটি বিলের মধ্যে দাবি করা হচ্ছে। ‘সারা আনোয়ারা’ নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে সাধারণ মানুষকে সতর্কতা অবলম্বন করতে অনুরোধ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দিবাগত রাত ১টা ৫০ মিনিটে পেজটিতে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়। পোস্টটি আজ শুক্রবার (৫ জুলাই) বিকেল ৫টা পর্যন্ত সাড়ে ৪ লাখ বার দেখা হয়েছে। রিয়েকশন পড়েছে প্রায় সাড়ে ৮০০। শেয়ার হয়েছে সাড়ে চার হাজার।

ভাইরাল ভিডিওটি সম্পর্কে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংবাদপত্র দৈনিক আজাদীর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে আজ শুক্রবার (৫ জুলাই) সকাল ১১টা ৪৯ মিনিটে পোস্ট করা একটি ভিডিও পাওয়া যায়। ভিডিওটি ভারতের আসাম রাজ্যের।

ভারতের সংবাদমাধ্যম রিপাবলিক গতকাল এক প্রতিবেদনে জানায়, আসামের নগাঁওয়ে গ্রামে বাঘের আক্রমণে দুই জন আহত হয়েছেন। স্থানীয়দের ধারণা, বাঘটি লাওখোয়া বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য থেকে বেরিয়ে এসে থাকতে পারে। তারা এক্স (সাবেক টুইটার) এর এক পোস্ট ওই ভিডিওটি শেয়ার করেছে।

‘সংবাদ প্রতিদিন’ নামের ভারতের আরেকটি সংবাদমাধ্যমের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজেও ভাইরাল ভিডিওটি পাওয়া যায়। ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা, ‘চাষের মাঠে বাঘ, আসামের নগাঁওয়ে আতঙ্ক ছড়াল রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার।’

এছাড়া আসামের আরেকটি সংবাদমাধ্যম ‘আসাম ট্রিবিউনে’ গত বুধবার (৩ জুলাই) প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকেও ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত হওয়া যায়।

আরাও পড়ুন... সেরা উক্তি