নেত্রকোণার পূর্বধলায় নেপিয়ার ঘাস খেয়ে এক খামারীর ২৬টি গরু মারা গেছে। গত দুই দিনে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া গ্রামের তাহাযীদ এগ্রো ফার্মে এসব গরু মারা যায়। অসুস্থ হয়ে পড়েছে আরও বেশ কিছু গরু।

জানা গেছে, পূর্বধলায় বাণিজ্যিকভাবে তাহাযীদ এগ্রো ফার্ম নামে একটি খামার গড়ে তুলেছেন জহিরুল ইসলাম। এ বছর কুরবানির ঈদকে সামনে রেখে অর্ধশতাধিক ষাঁড় গরু প্রস্তুত করেছিলেন তাঁর খামারে। গরুগুলোকে খামারের পাশে চাষ করা ঘাস খাওয়াতেন তিনি। তবে গত সোমবার ও মঙ্গলবার খাস খেয়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই খামারের গরু। দুইদিনে একে একে ২৬টি গরু মারা গেছে। আরও প্রায় ১০-১৫টি গরু অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

খামার মালিক জাহিরুল ইসলাম জানান, শনিবার সন্ধ্যায় নেপিয়ার ঘাস খাওয়ানোর পরেই তার গরুগুলো অসুস্থ হয়ে যায়। সবমিলিয়ে খামারের ২৬টি মারা গরু গেছে। সব ষাঁড় গরু কোরবানির সময় বিক্রি করার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল। এতে তার খামারের প্রায় ৩০ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।

পূর্বধলা উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. এম এম এ আউয়াল তালুকদার জানান, বৃষ্টির সময় কচি ঘাসে নাইট্রোজেনের মাত্রা বেশি থাকে। নাইট্রেট বিষক্রিয়ায় গরুগুলো মারা যেতে পারে। ঘাসের নমুনা সংগ্রহ করছেন প্রাণী সম্পদ বিভাগ। পরীক্ষার পর আরও বিস্তারিত জানা যাবে। আমাদের মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক চিকিৎসাসেবা প্রদান করছে।

আরাও পড়ুন... সেরা উক্তি