রাজধানীর সাদিক এগ্রো থেকে ১২ লাখ টাকায় ছাগল কেনা মুশফিকুর রহমান ইফাত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তা মতিউর রহমানেরই ছেলে। ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) নিজাম উদ্দিন হাজারী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, ইফাতের মা তার আপন মামাতো বোন। ছাগলকাণ্ডে ভাইরাল হওয়ার পর মতিউর রহমান দাবি করেছিলেন, ইফাত তার সন্তান নয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ইফাতের বিষয়ে জানতে চাইলে নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, ‘এইটা সঠিক, ওইটা ছেলে (ইফাত মতিউর রহমানের ছেলে)।’

মতিউর রহমানের দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে ইফাত, এটি কি আগের পক্ষের (ইফাতের মায়ের আগের স্বামীর) নাকি মতিউর রহমানের ছেলে- জানতে চাইলে এ এমপি বলেন, ‘মতিউর রহমান সাহেবেরই ছেলে।’

আপনার মামাতো বোনের নাম কি, তাদের বাড়ি কোথায়- এমন প্রশ্নের জবাবে নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, ‘শিমু, আমার নানা বাড়ি সোনাগাজীতে।’

ছাগলকাণ্ডে ভাইরাল হওয়ার পর মতিউর রহমান সংবাদমাধ্যমের কাছে দাবি করেছিলেন ইফাত তার সন্তান নয়। তিনি বলেছিলেন, ‘ছাগলকাণ্ডে ভাইরাল ওই ছেলেকে আমি চিনি না। সে আমার সন্তান নয়। আমার নাম জড়ানোয় আমি ও আমার পরিবার অনেক বিব্রত।’

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ১২ লাখ টাকায় ছাগল কেনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। এতে দেখা যায়, একটি ছেলে ছাগলটিকে ধরে রয়েছে। তার পাশেই দাঁড়িয়ে আছেন সাদিক এগ্রোর কর্ণধার মোহাম্মদ ইমরান হোসাইন। বিটল প্রজাতির ওই খাসিটির দাম ১৫ লাখ টাকা চেয়েছিল সাদিক এগ্রো। পরে ইফাতের সঙ্গে ১২ লাখ টাকায় বিক্রির চুক্তি হয় তাদের।

সাদিক এগ্রোর কর্ণধার মোহাম্মদ ইমরান হোসাইন জানান, আলোচিত যুবক ইফাত ১ লাখ টাকা দিয়ে ছাগলটি বুক করেছিলেন। এখন পর্যন্ত তিনি পুরো টাকা পরিশোধ করে ছাগলটিকে খামার থেকে নিয়ে যাননি।

আরাও পড়ুন... সেরা উক্তি