অষ্টমবারের মতো বিশ্বসেরা এয়ারলাইনসের স্বীকৃতি পেয়েছে মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক কাতার এয়ারওয়েজ। ২০২৪ সালের জন্য বিশ্বসেরা মুকুট অর্জন করল এয়ারলাইনসটি।

গত সোমবার বাণিজ্যিক এভিয়েশন খাতের অস্কার হিসেবে পরিচিত স্কাইট্রাক্স অ্যাওয়ার্ডে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এতে মান সম্মত সেবা ও আধুনিক বহরের জন্য বিশ্বসেরা নির্বাচিত হয় কাতার এয়ারওয়েজ।

স্কাইট্রাক্সের প্রধান নির্বাহী এডওয়ার্ড প্লাইসটেড এক বিবৃতিতে বলেন, ‘অষ্টমবারের মতো বিশ্বসেরা এয়ারলাইনস হওয়া কাতার এয়ারওয়েজের অসাধারণ এক অর্জন।’

বিশ্বসেরা হওয়ায় এয়ারলাইনসটিকে অভিনন্দনও জানান তিনি।

গত কয়েক দশক ধরেই কাতারের জাতীয় পতাকাবাহী প্রতিষ্ঠানটি বেশ সুনাম অর্জন করেছে। দেশটির হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরও এরই মধ্যে প্রতিদ্বন্দি দুবাই ও আবুধাবির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অ্যাভিয়েশনের গুরুত্বপূর্ণ হাব হয়ে উঠেছে।

কাতার এয়ারওয়েজের বর্তমান বহরে আছে ২৩০ টি উড়োজাহাজ। এতে এয়ারবাসের এ৩৮০ জাম্বোজেট সহ আছে বোয়িং ৭৭৭, বোয়িং ৭৮৭, এয়ারবাস ৩৫০’র মতো সুপরিসর উড়োজাহাজ। এগুলো ছাড়াও স্বল্পপাল্লায় উড়তে সক্ষম অনেকগুলো উড়োজাহাজও রয়েছে তাদের বহরে।

আরও যারা সেরা

এবারের বিশ্বসেরা ২০টি এয়ারলাইনসের মধ্যে প্রথম ৬টিই এশিয়ার। এবার দ্বিতীয় নম্বরে রয়েছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস। আর তৃতীয় হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এমিরেটস। এছাড়াও জাপানের এএনএ অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ চতুর্থ, হংকং ভিত্তিক ক্যাথে প্যাসিফিক পঞ্চম আর জাপান এয়ারলাইনসের অবস্থান ষষ্ঠ। বাংলাদেশের কোনো এয়ারলাইনস সেরার তালিকায় না থাকলেও ভারতের ভিস্তারাও উঠে এসেছে সেরা ২০ এয়ারলাইনসের তালিকায় তাদের অবস্থান ১৬।

সেরা কেবিন ত্রুর তালিকায় এবার সেরা হয়েছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে জাপানের এএনএ অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ আর তৃতীয় হয়েছে ইন্দোনেশিয়ার গারুদা। বিশ্ব সেরা এয়ারলাইনসের স্বীকৃতি পাওয়া কাতার এয়ারওয়েজের অবস্থান এক্ষেত্রে নবম।

কম খরচের বা বাজেট এয়ারলাইনসগুলোর মধ্যে সেরা হয়েছে মালয়েশিয়া ভিত্তিক এয়ার এশিয়া। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে স্পেনের ভোলোটিয়া আর তৃতীয় সৌদি আরবের ফ্লাই নাস। ভারতের ইন্ডিগোর অবস্থান এক্ষেত্রে পঞ্চম।

আরাও পড়ুন... সেরা উক্তি